বিয়ের আগে ছেলেদের প্রস্তুতি

বিয়ের আগে ছেলেদের প্রস্তুতি

বিয়ে একটি পবিত্র বন্ধন। এই বন্ধনের মাধ্যমে দুজন মানুষ সামাজিক এবং ধর্মীয় ভাবে একসাথে থাকার অধিকার লাভ করেন। বিয়ের আগে আমাদের দেশে সাধারণত আমরা মেয়েদের নানা রকম প্রস্তুতি দেখতে পায়। কিন্তু ছেলেদের জন্যও বিয়ের আগে নিজেদের প্রস্ততির দরকার। নানা কাজের চাপে ছেলেদের বিয়ের আগে তেমন প্রস্ততির সুযোগ না থাকলেও কিছু প্রস্তুতি নেওয়া একান্ত দরকার। ছেলেদের বিয়ের আগের সেই একান্ত কিছু প্রস্ততির বিষয় নিয়েই নিচের আলোচনা।

ত্বকের যত্ন

প্রবাদ আছে আগে দর্শনধারী, পরে গুণবিচারী। তাই বিয়ের আগে নিজের দর্শনকে ঠিক রাখতে ছেলেদের ত্বকের যত্ন নেওয়া অত্যন্ত জরুরি। ছেলেদের ত্বক সাধারণত একটু রুক্ষ হয়। তাই বিয়ের আগে সপ্তাহে অন্তত দুই থেকে দিনবার স্ক্রাব ব্যবহার করলে রুক্ষ ত্বক কিছুটা মসৃণ হয়। ছেলেদের ব্যবহারযোগ্য অনেক রকম স্ক্রাব এখন বাজারে পাওয়া যায়। এছাড়াও গ্লিসারিন, সাইট্রিক অ্যাসিড এগুলোও ছেলেদের ত্বকের যত্নে অনেক ভালো উপকারী। বিয়ের আগে তাই ছেলেদের স্ক্রাব করে নেওয়া ভালো, যাতে করে স্ক্রাব ত্বকের ভেতরকার ময়লা পরিষ্কার করে ত্বককে মসৃণ ও দ্যুতিময় করে।

চুলের যত্ন

ছেলেরা সাধারণত বাইরে বেশি সময় ব্যয় করে। যার কারণে বাইরের ধুলাবালি এবং রোদের প্রখরতা চুলকে সমস্যায় ফেলে দেয়। চুল পড়া, চুলে খুশকি পড়াসহ নানান সমস্যা দেখা দেয়। তাই বিয়ের আগে চুলের দিকে ছেলেদের বেশি মনোযোগ দেওয়া দরকার। চুলের যত্নের ক্ষেত্রে পেয়াজের রস খুব উপকারী। চুলকে খুশকির সমস্যা থেকে মুক্তি দেওয়ার পাশাপাশি পেয়াজের রস নতুন চুল গজাতে ও সাহায্য করে। এছাড়াও যাদের চুল রুক্ষ তারা সহজে ঘরে বসেই বানিয়ে ফেলতে পারেন একটি কার্যকরী হেয়ার প্যাক। ১ টেবিল চামচ মধু, লেবুর রস আর অলিভ অয়েল একত্রে মিশিয়ে তা চুলে মাখিয়ে ২০-৩০ মিনিট পরে ধুয়ে ফেলুন। দেখা যাবে চুল অনেক সিল্কি হয়ে গিয়েছে।

ঘুম

বিয়ের আগে নিয়মিত এবং পর্যাপ্ত ঘুম খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিয়ের আগে নানান ব্যস্ততার জন্য অনেকেই ঘুমানোর সময় পাননা। নানান দায়িত্ব ভর করার কারণে ঘুমের বিষয়টা অনেকেই ভুলে যান। এতে করে মারাত্মক স্বাস্থ্যের ক্ষতি হয়। বিয়ের আগে যত ব্যস্ত থাকুন না কেন নিজের জন্য সময় বের করে রাখুন। পর্যাপ্ত ঘুমান। ঘুম শরীরকে চাঙ্গা রাখে এবং বাহ্যিক সৌন্দর্য ও বজায় রাখে। মানসিকভাবে সুস্থ থাকতেও নিয়মিত ঘুমের দরকার। তাই বিয়ের আগে নিজের ঘুমের জন্য পর্যাপ্ত সময় বের করুন এবং নিয়মিত ঘুমকে নিজের অভ্যাসে পরিণত করুন।

খাদ্যাভাস

দৈনন্দিন জীবনে খাদ্যাভাস খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিয়ের আগে খাদ্যাভাস আরো জরুরি কেননা সঠিক খাদ্যাভ্যাসের ওপর অনেক কিছু নির্ভর করে। বিয়ের আগে অন্তত খাবারের তালিকায় কিছুটা পরিবর্তন নিয়ে আসুন। তেল চর্বিযুক্ত খাবার পরিহার করুন। ভিটামিন যুক্ত খাবার খাওয়ার দিকে মনোযোগ দিন। সকালে ঘুম থেকে উঠে হাঁটার অভ্যাস তৈরী করুন। এছাড়াও ধূমপান এবং মদ্যপানের অভ্যাস থাকলে তা পরিহার করুন।

বিয়ের আগে যত ব্যস্ততায় থাকুন না কেন নিজের জন্য কিছু সময় বের করুন। নিজেকে মানসিকভাবে প্রস্তুত করুন। নিজের স্বাস্থ্যের দিকে মনোযোগ দিন যাতে করে বিয়ের দিন নিজেকে সুন্দরভাবে সবার সমানে উপস্থাপন করে পারেন। পর্যাপ্ত আত্মবিশ্বাস সঞ্চার করে বিয়ের পিড়িতে ওঠুন এবং জীবনের অসাধারণ মুহুর্ত গুলোকে নিজের মাঝে ধারণ করুন।

Comments
No comment yet